এনজিও সংস্থা ‘আশা’র ৩ কর্মী করোনা আক্রান্ত : ব্রাঞ্চ লকডাউন করার দাবি এলাকাবাসীর

প্রকাশিত: ৪:৩৬ অপরাহ্ণ, জুন ২৭, ২০২০

এনজিও সংস্থা ‘আশা’র ৩ কর্মী করোনা আক্রান্ত : ব্রাঞ্চ লকডাউন করার দাবি এলাকাবাসীর

 

ক্ষুদ্র ঋণদানকারী এনজিও সংস্থা ‘আশা’ হেয়াকো শাখার তিন কর্মীর শরীরে করোনা পজেটিভ পাওয়া গেছে।
গত ১৮ জুন রামগড় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে উক্ত তিন কর্মী কোভিড-১৯ এর নমুনা দেয় বলে জানা গেছে। গতকাল প্রকাশিত রিপোর্টে তাদের শরীরে করোনা পজেটিভ আসে। তারা তিনজনই নিজ নিজ বাড়িতে স্ব – উদ্যোগে আইসোলেশনে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন বলে জানান দাতঁমারা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ সোহরাওয়ার্দী সরোয়ার। তিনি জানান,আক্রান্তদের মধ্যে একজনের বাড়ি খাগড়াছড়ি, একজন ফেনী এবং অপরজনের বাড়ি চিকনছড়া মোহাম্মদপুর এলাকায়। সংস্থার ম্যানেজারকে কার্যক্রম সংক্ষিপ্ত করে অফিসের কাজ অফিসে শেষ করার জন্য বলা হয়েছে।
তবে স্থানীয়রা অভিযোগ করে বলেন, আশা’র কর্মীরা এখনও তাদের কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। তারা পাবলিকের সাথে মিশে তাদের কাজ করছে। এতে ঝুঁকি বেড়ে যাবে বলে সচেতন মহল মনে করে। সংস্থাটির বাকি কর্মকর্তা-কর্মচারিদের শরীরে করোনা রয়েছে কিনা তা পরীক্ষা করার দাবি জানিয়ে আপাতত হেয়াকো সরকারপাড়া বিজিবি ক্যাম্প সংলগ্ন অফিসটি লকডাউন করার দাবি জানান স্থানীয়রা।
এ ব্যাপারে সংস্থাটির হেয়াকো শাখার দায়িত্বে থাকা ম্যানেজার মোঃ মহিউদ্দিন বলেন, গত ১৭ জুন আমাদের দুই মাঠকর্মী এবং বাবুর্চির শরীরে হালকা জ্বরের লক্ষণ দেখা দিলে আমি তাদের ডিউটি বন্ধ করে ১৮ জুন রামগড় সদর হাসপাতালে উক্ত তিনজনের করোনার নমুনা পাঠাই। গতকাল প্রকাশিত রিপোর্টে তাদের করোনা পজেটিভ আসে।আমি তিনজনকে ছুটিতে পাঠায়েছি। তারা বর্তমানে সুস্থ্য আছেন। হেড অফিস এবং প্রশাসনের সাথে কথা বলে আমাদের পরবর্তী সিদ্ধান্ত জানাবো।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

Share via
Copy link
Powered by Social Snap