নানুপুর ও সুয়াবিল ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী বিজয়ী

প্রকাশিত: ৯:০৯ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২০, ২০২০

নানুপুর ও সুয়াবিল ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী বিজয়ী

 

হালদা-২৪ ডেস্ক :

অবশেষে সকল জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে ফটিকছড়ির দুই ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থীরা নৌকা প্রতীক নিয়ে বিজয়ী হয়েছেন।
সুয়াবিলে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী জয়নাল আবেদিন (নৌকা) এবং নানুপুর ইউপিতে আওয়ামী লীগ সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থী শফিউল আজম (নৌকা)
বেসরকারী ফলাফলে বিজয় লাভ করেছেন।
২০ অক্টোবর অনুষ্ঠিত নির্বাচনে সুয়াবিল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী জয়নাল আবেদিন নৌকা প্রতীক পেয়েছেন ৩,৯৫৮। স্বতন্ত্রপ্রার্থী মোহাম্মদ হায়াৎ আনারস প্রতীকে পেয়েছেন ৩,২৪৬। ৭১২ ভোট বেশি পেয়ে জয়নাল আবেদিন বিজয় লাভ করেন।
নানুপুরে নৌকা প্রতীক নিয়ে সফিউল আজম ৪,৮৩৮ ভোট এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী আমান উল্লাহ ঘোড়া প্রতীকে পেয়েছেন ৩,১৭৪ ভোট। ১,৬৬৪ ভোট বেশি পেয়ে সফিউল আজম চেয়ারম্যান নির্বাচিত।
উল্লেখ্য সুয়াবিলে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী জয়নাল আবেদিন নৌকা, বিএনপি মনোনীত প্রার্থী মোহাম্মদ ইয়াকুব ধানের শীষ, স্বতন্ত্রপ্রার্থী মোহাম্মদ হায়াৎ আনারস ও স্বতন্ত্রপ্রার্থী নুরুল আলম চশমা প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেছেন।
নানুপুর ইউপিতে আওয়ামী লীগ সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থী শফিউল আজম নৌকা, বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী জয়নাল আবেদিন ধানের শীষ, স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মুহাম্মদ আমান উল্লাহ ঘোড়া, মুহাম্মদ নুরুল হুদা আনারস, মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন টেবিল ফ্যান, মুহাম্মদ ছাবের উদ্দিন মোটরসাইকেল ও সৈয়দ মঈনুদ্দিন রজনীগন্ধা প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্ধিতা করেছেন।
নানুপুর ইউপি চেয়ারম্যান ওসমান গনি বাবুর মৃত্যুতে সেখানে চেয়ারম্যান পদে উপ নির্বাচন এবং সুয়াবিল ইউপির বড় অংশ নাজিরহাট পৌরসভায় চলে যাওয়াতে সেখানে বাকী এলাকা গুলোকে ৯ টি ওয়ার্ডে ভাগ করে ১৪ বছর পরে এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

Share via
Copy link
Powered by Social Snap