ফটিকছড়িতে চা শ্রমিকদের কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ

প্রকাশিত: ৯:০০ অপরাহ্ণ, জুন ১৭, ২০২০

ফটিকছড়িতে চা শ্রমিকদের কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ

 

হালদা-২৪ ডেস্ক :

ফটিকছড়ির মা’জান চা বাগানের শ্রমিকদের কাছ থেকে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় কর্তৃক প্রদত্ত ৫ হাজার টাকার অনুদান পাইয়ে দেয়ার নামে শ্রমিকদের কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে বাগানটির এক কর্মকর্তার বিরুদ্ধে। প্রতি বছর নির্ধারিত সময়ে কর্মহীন হয়ে পড়া শ্রমিকদেরকে উপজেলা সমাজসেবা কার্য্যালয়ের মাধ্যমে ৫ হাজার টাকা করে অনুদান প্রদান করা হয়। এ তালিকায় নাম দেয়ার কথা বলে ১৫০ টাকা হারে আদায়ের অভিযোগ উঠেছে বাগানটির হেড টিলা বাবু (সহ-ব্যবস্থাপক) মোঃ সেকান্দরের বিরুদ্ধে।

জানা গেছে, প্রতি বছর আগস্ট থেকে ডিসেম্বর পযর্ন্ত উৎপাদন না থাকায় চা বাগানের শ্রমিকরা কর্মহীন হয়ে পড়ে। কর্মহীন চা শ্রমিকদের জীবন মান উন্নয়নে বর্তমান সরকার প্রতি বাগান থেকে নির্ধারিত সংখ্যক শ্রমিককে ৫ হাজার টাকা হারে অনুদান প্রদান করছে। এ বছর যারা টাকা পাবে আগামী বছর তাদেরকে বাদ দেয়া হয়। অন্যান্য চা বাগানের ন্যায় মাজান চা বাগানের শ্রমিকরাও সরকারী এ সুযোগ পেয়ে আসছে। গত বছর (২০১৮/১৯ অর্থ বছরে) এ বাগান থেকে ৭৮ জন শ্রমিক অনুদান পায়।এ বছর ৮১ জন শ্রমিক এ অনুদান পাবে। বাগান থেকে প্রদত্ত তালিকা অনুসারে উপজেলা সমাজসেবা অফিস তালিকা চুড়ান্ত করেন।তবে বাগানের শ্রমিকরা অভিযোগ করে জানান, টিলা বাবু সেকান্দর প্রত্যেক শ্রমিকের কাছ থেকে খরচের কথা বলে ১৫০ টাকা হারে আদায় করেন। এ বছরের তালিকার জন্যও টাকা দাবি করছে সে। বাগানটির ম্যানেজার মাহতাব উদ্দিনের দৃষ্টি আকর্ষন করা হলে তিনি বলেন, আমি বাগানে নতুন যোগদান করেছি। বিষয়টি আমার জানা নেই। তারপরও খোঁজ নিয়ে ব্যবস্থাগ্রহণ করার কথা বলেন তিনি।

ফটিকছড়ি উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা রাজিব কুমার আচার্য্য বলেন, এ অনুদানের টাকা পেতে শ্রমিকদের কোন টাকা খরচ করতে হয় না। টাকা নেয়ার বিষয়টি অন্যায় বলে জানান। এ ব্যাপারে অভিযুক্ত সেকান্দরের বক্তব্য জানতে চাইলে তিনি টাকা নেয়ার বিষয়টি অস্বীকার করেন।

এদিকে উক্ত সেকান্দরের বিরুদ্ধে হাসনাবাদ বৈদ্যপাড়া এলাকার পশ্চিম অংশে চলমান থাকা বিদ্যুৎ সংযোগে ঠিকাদারের নাম করে গ্রামের লোকজনের কাছ থেকেও টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। উক্ত সংযোগের খুঁটি স্থাপন এবং তার টানা হয়েছে বলেন জানান স্থানীয়রা।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

Share via
Copy link
Powered by Social Snap