ফটিকছড়িতে শিশুর ঈদের জমানো অর্থ করোনার আপদকালীন ফান্ডে

প্রকাশিত: ৫:৫৭ অপরাহ্ণ, জুন ১১, ২০২০

ফটিকছড়িতে শিশুর ঈদের জমানো অর্থ করোনার আপদকালীন ফান্ডে

 

হালদা-২৪ ডেস্ক :

চট্টগ্রামের ফটিকছড়িতে এক শিশুর ঈদের জমানো অর্থ দিলেন করোনার আপদকালীন ফান্ডে। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. সায়েদুল আরেফিনের হাতে এ অর্থ জমা দেন।
শিশুটির নাম তাসফিয়া জারিন। সে দৈনিক প্রথম আলোর ফটিকছড়ি উপজেলা প্রতিনিধি সাংবাদিক এস. এম আক্কাছ উদ্দিনের মেয়ে।
তাসফিয়া জারিন জানায়, আত্মীয়-স্বজনদের কাছ থেকে সে ঈদ উপহারের বিভিন্ন সময় পাওয়া টাকা তার একটি মাটির ব্যাংকে জমিয়ে রাখত। করোনার মহামারীর কারণে ব্যাংক ভেঙে জমানো টাকাগুলো করোনার আপদকালীন ফান্ডে জমা দেওয়ার চেষ্টা করলে আমার বাবা এসব অর্থ ইউএনওর হাতে জমা দেওয়ার অনুরোধ জানায়। সে মতে ব্যাংকে জমানো ১ হাজার ৩২০ টাকা দান করি।
তাসফিয়ার বাবা সাংবাদিক এস এম আক্কাছ উদ্দিন বলেন, ‘করোনার এই মহামারিতে ফটিকছড়ি সদরের ২০ শয্যা হাসপাতালকে কোভিড-১৯ হাসপাতাল রূপান্তর এবং বাস্তবায়নে অনেক টাকার প্রয়োজন। তাই মেয়ের সম্মতিতে তার জমানো এই অর্থগুলো সেখানে খরচের জন্য দান করা হয়। আশা করি কাজে আসবে।’
উপজেলা নির্বাহী কর্মর্কা (ইউএনও) মো. সায়েদুল আরেফিন বলেন, ‘শিশুটি আমাদের চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে একতাই শক্তি। এভাবে সবাই এগিয়ে এলে আমাদের স্বপ্নের কোভিট-১৯ হাসপাতালের স্বপ্ন সত্যি হবে।’
উল্লেখ্য, গত ৯ জুন উপজেলা সদরের ২০ শয্যা হাসপাতালকে বিশেসায়িত কোভিট-১৯ হাসপাতালের ঘোষণা দেন সাংসদ সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী। এর পর থেকে সেটির উন্নয়নে এলাকার বিভিন্ন ব্যক্তিবর্গ সহায়তায় এগিয়ে আসেন।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

Share via
Copy link
Powered by Social Snap