ফটিকছড়ির লেলাং ইউনিয়ন থেকে গলায় ফাঁস লাগানো এক গৃহবধুর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ

প্রকাশিত: ৪:১০ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৭, ২০২০

ফটিকছড়ির লেলাং ইউনিয়ন থেকে গলায় ফাঁস লাগানো এক গৃহবধুর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ

 

রফিকুল আলম :

ফটিকছড়ি উপজেলার লেলাং থেকে রুনা আকতার (২০) নামের এক গৃহবধুর মরদেহ থানা পুলিশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করেছে।

জানা যায়, ৪ অক্টোবর রাত সাড়ে ৯টার দিকে উপজেলার লেলাং ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের শেখ মোহাম্মদ বাড়ি প্রকাশ ওয়াজ পল্লান বাড়ির জনৈক মোঃ ইছহাকের মেয়ে রুনা আমগাছের সাথে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, দেড় বছর আগে রুনার সাথে ফটিকছড়ি পৌর এলাকায় ৪নং ওয়ার্ডের জনৈক মোঃ শফির প্রবাসী ছেলে সেলিম উল্যাহর বিয়ে হয়। বিয়ের ৩ মাস পর সেলিম প্রবাসে চলে যায়। ৭ মাস পর গত মার্চে আবার বাড়ি আসে। সেলিম বাড়ি আসার পর রুনা তার পিত্রালয়ে চলে যায়। গত ৬-৭ মাস যাবৎ রুনা পিত্রালয়ে অবস্থান করে আসছিল। রুনা পিত্রালয়ে যাবার সময় সেলিমের পাসপোর্টসহ বিভিন্ন জিনিস নিয়ে যায়। অবশেষে গত ৩ অক্টোবর সেলিমের পাসপোর্ট ফেরৎ দেয়। তবে পিত্রালয়ে থেকে রুনা কি কারণে আত্মহত্যা করেছে ; তা রহস্যজনক।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে থানার এস আই মোঃ জিয়াউল হক জিয়া বলেন, বসত ঘরের ছাদের উপরে আম গাছের ঢালের সাথে গলায় ফাঁস লাগানো রুনার মরদেহ গত রবিবার রাত ১২ টার দিকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়। আজ সোমবার (৫ অক্টোবর) মরদেহ মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

Share via
Copy link
Powered by Social Snap