শিরোপার আরো কাছে রিয়াল মাদ্রিদ

প্রকাশিত: ১১:২৫ অপরাহ্ণ, জুলাই ৫, ২০২০

শিরোপার আরো কাছে রিয়াল মাদ্রিদ

 

সার্জিও রামোসের টানা ২২তম পেনাল্টি গোলে রিয়াল মাদ্রিদ ১-০ গোলের ব্যবধানে জয় তুলে নিয়েছে। অ্যাথলেটিক ক্লাব বিলবাওয়ের বিপক্ষে ম্যাচের ৭৩ মিনিটে পেনাল্টি স্পট থেকে চলতি মৌসুমে নিজের ১০তম গোল করে দলের জয় নিশ্চিত করেন রামোস। এই জয়ে বার্সেলোনা থেকে সাত পয়েন্টের ব্যবধানে এগিয়ে গেল রিয়াল মাদ্রিদ।

 

লা লিগা জয়ের লক্ষ্যে কঠিন এক বাধার মুখে রিয়াল মাদ্রিদ। ২০১৭ সালের পর থেকে বিলবাওয়ের স্টেডিয়াম সান মেমেসে জয়ের দেখা পায়নি লস ব্ল্যাঙ্কোসরা। আর তাই এই ম্যাচের দিকেই পাখির চোখ করে ছিলেন জিদান। এই ম্যাচে জয় পাওয়াটা লিগ জয়ের দৌড়ে গুরুত্বপূর্ণ ছিল বেনজেমা-কোর্তোয়াদের জন্য। শেষ পর্যন্ত পূর্ণ তিন পয়েন্ট এবং সঙ্গে চলতি মৌসুমে লিগে নিজেদের ১৮তম ক্লিনশিটও পায় গ্যালাক্টিকোরা।

 

সান মেমেসে যাওয়ার আগে রিয়াল মাদ্রিদে দলে বড় এক ধাক্কা আসে। দুর্দান্ত ফর্মে থাকা রাফায়েল ভারান মাথায় আঘাত পেয়ে এই ম্যাচ থেকে ছিটকে যান। এছাড়াও ঘরের মাঠে এস্পানিওলের বিপক্ষে ডান গোড়ালিতে ব্যথা পেয়ে দুই ম্যাচ ধরেই মাঠের বাইরে এডেন হ্যাজার্ড। আর সদ্য গোড়ালির অস্ত্রপচার হওয়া হ্যাজার্ডকে নিয়ে তাই কোনো ধরনের ঝুঁকি নিতে চাননি জিদান। শেষ পর্যন্ত দলের গুরুত্বপূর্ণ দুই সদস্য ভারান এবং হ্যাজার্ডকে ছাড়ায় বিলবাও পরীক্ষা দিতে যায় লস ব্ল্যাঙ্কোসরা।

 

 

জিদান এবং তার দল জানতেন আগে থেকেই, সান মেমেস থেকে তিন পয়েন্ট নিয়ে ফেরাটা সহজ কাজ হবে না। তবে কঠিন কাজকেও সহজ বানিয়ে ফেলেন জিনেদিন জিদান। পুরো ম্যাচজুড়েই নিজেদের আধিপত্য দেখায় রিয়াল। আক্রমণ কিংবা রক্ষণ দুই জায়গাতেই অ্যাথলেটিক ক্লাবকে পেছনে ফেলে দেন রামোসবাহিনী।

 

ম্যাচ নিজেদের নিয়ন্ত্রণে থাকলেও গোলের দেখা মিলছিল না। যদিও করিম বেনজেমা দু’টি সহজ সুযোগ হেলায় হারান প্রথমার্ধেই। মার্কো অ্যাসেন্সিওর দুর্দান্ত দু’টি ক্রসকে গোলে পরিণত করতে ব্যর্থ বেনজেমা। আর তাতেই প্রথমার্ধে দুইবার এগিয়ে যাওয়ার সুযোগও নষ্ট রিয়ালের। অপেক্ষা বড়ছিল আর রিয়াল সমর্থকদের হৃদকম্পনও বাড়ছিল। কারণ এই ম্যাচ ড্র করলে আর বার্সা নিজেদের ম্যাচ জিতলেই পয়েন্ট ব্যবধান কমে নেমে আসবে দুইয়ে। আর শিরোপার লড়াই আবারও জমে উঠবে।

 

অবশ্য জিদানের কৌশল যে ভিন্ন ছিল তার দেখা মিললো দ্বিতীয়ার্ধেই। রক্ষণ থেকে তার দুই ফুলব্যাক মার্সেলো এবং কার্ভাহালকে আরও আক্রমণে কৌশল বাতলে দিলেন। তারাও কোচের কথা মতো নিজেদের আক্রমণাত্মক রূপ দেখিয়ে দিলেন। ম্যাচের ৭১ মিনিটে নিজেদের ডি বক্সে মার্সেলোকে ফাউল করায় পেনাল্টি পায় রিয়াল মাদ্রিদ। আর পেনাল্টি নিতে আসেন রিয়াল অধিনায়ক সার্জি রামোস। এর আগে নিজের নেওয়া শেষ ২১টি পেনাল্টি থেকেই গোল করেছেন রামোস। আর এটি দিয়ে পূর্ণ করেন ২২তম টানা পেনাল্টি গোল।

 

রামোসের এই গোলেই সান মেমেসে ১-০ গোলের লিড নেয় রিয়াল। আর শেষ পর্যন্ত ধরে রাখে লিড। তাতেই রিয়ালের তিন পয়েন্ট নিশ্চিত হয়। এই ম্যাচের জয় দিয়ে লিগের ৩৪তম ম্যাচ শেষে ২৩ জয়, ৮ ড্র এবং ৩ হারে ৭৭ পয়েন্ট নিয়ে লিগের শীর্ষে রিয়াল মাদ্রিদ। অন্যদিকে এক ম্যাচ কম ৩৩ ম্যাচে ২১ জয়, ৭ ড্র এবং ৫ হারে ৭০ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে বার্সেলোনা।

Share via
Copy link
Powered by Social Snap